ফেনী
বুধবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, সন্ধ্যা ৭:৪০
, ২৪শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম:

র‌্যাবের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

ফেনীতে আ.লীগ নেতাকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ

ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুরে আওয়ামীলীগ নেতা নুর উদ্দিন জাহাঙ্গীরকে শুক্রবার সকালে অস্ত্র সহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। ঘটনাটি সাজানো দাবী করে র‌্যাবের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে তার পরিবার। গ্রেফতার জাহাঙ্গীর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং স্থানীয় আমিন উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন।

ফেনীস্থ র‌্যাব-৭ এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক মো: নুরুজ্জামান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাবের একটি দল ধর্মপুর গ্রামে অভিযান চালায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে ধাওয়া করে নুরুদ্দীন জাহাঙ্গীর (৪৯) কে গ্রেফতার করা হয়। তার তথ্যমতে, বাড়ির গুদাম ঘরের দক্ষিণ-পশ্চিমে একটি কালো র‌্যাকেটের কভারে ভিতরে লুকানো অবস্থায় একটি বিদেশী পিস্তল, একটি দেশীয় পাইপগান, একটি ম্যাগজিন, দুই রাউন্ড গুলি, একটি রামদা ও দুটি ছোরা উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে তাকে ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে জাহাঙ্গীর জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে সে মাদক, অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপে জড়িত।
এদিকে র‌্যাবের অভিযোগ প্রত্যাখান করে শনিবার শহরের একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন করেছে গ্রেফতার আওয়ামীলীগ নেতার পরিবারের সদস্যরা। জাহাঙ্গীরের বাবা হাজী মো: ছাদেক কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তিনি বলেন, গত ২৭ ডিসেম্বর সকাল ১১টার দিকে ধর্মপুর এলাকায় একটি বিয়েবাড়ি থেকে সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে গ্রেফতার করে। বসতবাড়িতে তল্লাশী করে বৈধ-অবৈধ কিছু না পেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক সদস্য গাড়ী থেকে দুটি ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেটের ব্যাগ এনে অস্ত্র বের করে বাড়ির সামনে কাছারি ঘরের দরজায় রেখে ছবি তুলেন। এসময় জাহাঙ্গীরের বড় ভাই জসিম উদ্দিন ও ছোট ভাই শরীফ উদ্দিন প্রতিবাদ করলে তাদের মারধর করে গাড়িতে উঠিয়ে রাখে। বাড়ির লোকজন শোরচিৎকার করলে জসিম ও শরীফকে ছেড়ে দেয়। ওইদিন সন্ধ্যা ৭টার দিকে র‌্যাব নুর উদ্দিন জাহাঙ্গীরকে অস্ত্র সহ ফেনী মডেল থানায় চালান দেয়।
পরিবারের দাবী, এ ঘটনার পর থেকে পুরো পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। নুরু উদ্দিনের স্ত্রী তাসলিমা আক্তার এ বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত করতে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে নুর উদ্দিনের বড় ভাই জসিম উদ্দিন, ছোট ভাই শরীফ উদ্দিন, বড় বোন কোহিনুর বেগম, চাচা সামছুল হুদা, ছেলে নুর আহনাফ, মেয়ে আফরিদা নুর সহ স্বজনরা অংশ নেন।

ট্যাগ :

আরও পড়ুন


Logo