ফেনী
শুক্রবার, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৪:৫১
, ২০শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি
শিরোনাম:

আলোকদিয়ায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় প্রার্থীর এজেন্টকে হত্যা চেষ্টা,বসতঘর-দোকান ভাংচুর

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ফেনীতে প্রার্থীর এজেন্টকে হত্যা চেষ্টা, বসতঘর ও দোকান ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর বুধবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার কালিদহ ইউনিয়নের আলোকদিয়ায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার বিকালে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, কালিদহ ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ডে তালা প্রতিকের সাধারণ সদস্য প্রার্থী আবুল কালামের নির্বাচনী প্রচার প্রচারনায় সক্রিয়ভাবে অংশ নেন আলোকদিয়ার চৌধুরী বাড়ির মৃত ওহিদের রহমানের ছেলে নাছির উদ্দিন। বুধবার নির্বাচনের সময় চেওরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কালামের এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এসময় মোরগ প্রতিকের সদস্য প্রার্থী হাসান ইকবাল শাহিনের পক্ষে জাল ভোট প্রদানকালে এক যুবককে ধরে প্রিসাইডিং অফিসারের নিকট সোপর্দ করে নাছির। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নাছিরকে মোরগ প্রতিকের জসিম কেন্দ্রে মারধর করে ও প্রাননাশের হুমকি দেয়। ভোট শেষে নির্বাচনে টিউবওয়েল প্রতীকে বিজয়ী হন ফরিদ আহম্মদ টিটু। কেন্দ্র থেকে ফলাফল ঘোষণা পর মোরগ প্রতিকের প্রার্থী শাহীন ও তার চাচা জসিমসহ উত্তেজিত সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পরাজিত প্রার্থী আবুল কালামের এজেন্ট নাছির উদ্দিনকে হত্যা চেষ্টা করে তার বাড়িঘরে হামলা ও ভাঙচুর করে। পরে ককটেল বিস্ফোরন ঘটিয়ে তারা পালিয়ে যায়। এসময় স্থানীয়রা এগিয়ে এসে নাছিরকে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

ভুক্তভোগী নাছির উদ্দিন বলেন, হামলাকারীদের ভাংচুরের কারণে প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতিসাধন হয়।

এ ব্যাপারে ৯ নং ওয়ার্ডের বিজয়ী ইউপি সদস্য ফরিদ আহম্মদ টিটু ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, এধরনের ঘটনা খুবই দুঃখ জনক, বিষয়টি জানার সাথে সাথে ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করেছি। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন ডালিম জানান, নির্বাচন কেন্দ্রীক  উত্তেজনার বশবর্তী হয়ে ঘটনাটি ঘটেছে।

ফেনী মডেল থানার ওসি নিজাম উদ্দিন জানান,অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে পুলিশ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ট্যাগ :

আরও পড়ুন


Logo