ফেনী
শনিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, দুপুর ১২:০১
, ৫ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

১৫ দিন পর পরশুরামের সেই কৃষকের লাশ ফেরত দিল ভারত

ফেনীর পরশুরামে বিএসএফের গুলিতে নিহত কৃষক মেজবাহর লাশ গত ১৫  দিন পর ভারত পুলিশের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার দুপুরে  বিলোনিয়া স্থলবন্দরের চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় পুলিশ। পরশুরাম থানা পুলিশ মেজবাহর লাশ  গ্রহণ করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।
এ সময় বিজিবির খেজুরিয়া কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার ওমর ফারুক ও পরশুরাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম, ২০০ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের সারসীমা কোম্পানি কমান্ডার সত্যিয়া পাল সিং ও ভারতীয় বিলোনিয়া থানার ওসি পরিতোস দাস,মেজবাহারের
 স্ত্রী মরিয়ম বেগম, বোন পারুল আক্তারসহ চার মেয়ে, পরশুরাম পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল ও স্থানীয় কাউন্সিলর নিজাম উদ্দিন সুমন উপস্থিত ছিলেন।
মেজবাহর স্ত্রী মরিয়ম আক্তার বলেন, তার স্বামীর মরদেহ চেনার উপায় নেই, অনেকটা পচে-গলে গেছে। এ ঘটনায় তিনি বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি করেন।
পরশুরাম থানার ওসি (তদন্ত) পার্থ প্রতিম দেব বলেন, গত ১৬ নভেম্বর বুধবার রাত ৩টার দিকে বিজিবি ও বিএসএফের সমাঝোতা বৈঠকের পর ভারতের সীমারেখার মধ্যে থাকা লাশটি ভারতীয় কর্তৃপক্ষ নিয়ে যায়। পরদিন বৃহস্পতিবার লাশ ফেরত দেওয়া হবে বলে বৈঠকে প্রতিশ্রুতি দিলেও প্রায় ১৫ দিন পর ফেরত দেয়।
এর আগে গত ১৩ নভেম্বর বিকেলে পরশুরামের বাঁশপদুয়া গ্রামের ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় ধান কাটতে যান কৃষক মেজবাহ উদ্দিন। এ সময় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ তাঁকে জোর করে ধরে নিয়ে যায়।এর তিনদিন পর ভারত সীমান্তের একশ গজের মধ্যে কাঁটাতারের পাশে তার লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা।

ট্যাগ :

আরও পড়ুন


Logo